Super Life HackUncategorized লাইফ হ্যাক 

একটু পরিবর্তন বাঁচাতে পারে অনেক মূল্যবান সময়!

প্রতিনিয়ত দিনে অনেক কাজ করতে হয়। শুধুমাত্র কোন কাজটার জন্য কতটুকু সময় প্রয়োজন বা কখন করা উচিৎ তা না জানার কারণে অনেক কাজ অসম্পূর্ণ থেকে যায়।  নিম্নের ছোট বিষয়গুলো অনুসরণ করলেই প্রতিদিনের কাজ গুলো অনেক সহজ হয়ে যেতে পারে।

সঠিক পরিকল্পনাঃ  আগামীকালকের কাজ আগের দিন সাজিয়ে সেই অনুযায়ী চললে কাজ গুলো গুছিয়ে করা সম্ভব যায়। পূর্ব পরিকল্পনা করা থাকলে কাজ সঠিক সময়ে শেষ করাও সম্ভব হয়।

গুরুত্ব অনুযায়ী কাজ সাজানোঃ প্রতিদিনের রুটিন সাজানোর আগে অবশ্যই কাজের গুরুত্ব অনুযায়ী সাজাতে হবে। তাহলে খুব সুন্দর ভাবে কাজ শেষ হবে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের ব্যবহার কমানোঃ বর্তমান যুগে দিনের অনেকটা সময় ব্যয় হয় বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে; যেমন, ফেসবুক, স্ন্যাপ চ্যাট, টুইটার ইত্যাদি। কিন্তু কাজের সময় যদি এগুলোর ব্যবহার না কমানো হয়, তাহলে কাজের মনোযোগ এবং সময় দুটোই নষ্ট হয়।  

কাজ অসম্পূর্ণ না রাখাঃ একটি কাজে সময় বেশী লাগছে তাই বলে মাঝ পথে কাজ ফেলে অন্য কাজে হাত দেয়া ঠিক না। এতে আগেরটি অসম্পূর্ণ থাকার কারণে মানসিক অশান্তির সৃষ্টি হয়। যার কারণে পরের কাজগুলোতে সময় বেশী লাগে।

কাজে ফোকাস করাঃ  নিঃসন্দেহে প্রতিটি কাজই অনেক গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু সব কাজে সমান ভাবে ফোকাস না করে কঠিন এবং গুরুত্বপূর্ণ কাজগুলোর প্রতি বেশী ফোকাস করা উচিৎ। তাহলে ছোট ছোট কাজ গুলোও খুব তাড়াতাড়ি সম্পন্ন হয়।

কঠিন কাজ আগে করাঃ  অনেকেই কঠিন কাজগুলো দিনের শেষে করার জন্য রেখে দেন। দিনের শুরুতে সহজ কাজ গুলো সেরে ফেলেন। অনেকের ধারণা যে এতে সময় কম নষ্ট হয় কিন্তু ধারনাটি ভুল। দিনের শুরুতে মস্তিস্ক সতেজ থাকে যার ফলে কাজ দ্রুত শেষ হয়।  দিন শেষে মস্তিষ্ক ক্লান্ত হয়ে যায়। তাই দিন শেষে কঠিন কাজে সময় তুলনামূলক বেশী প্রয়োজন হয়। কঠিন কাজ যত বড়ই হোক না কেনো দিনের শুরুতে শেষ করা উচিৎ।

Comments

comments

Related posts