Super Life Hackপ্রযুক্তি মোটিভেশন 

জীবনের সবচেয়ে বড় ঝুঁকি কোন ঝুঁকি না নেয়া।- জুকারবার্গ

মার্ক এলিওট জুকারবার্গ ফেসবুকের প্রতিষ্ঠাতা জন্ম গ্রহণ করেন ১৯৮৪ সালে নিউ ইয়র্কের ওয়াইট প্লেন নামক একটি স্থানে। মার্ক মাধ্যমিক পড়ার সময় হতেই কম্পিউটার ব্যবহার করতে শুরু করেন। তার বাবা তাকে ১৯৯০ সালের দিকে তাকে আতারি বেসিক প্রোগ্রামিং শিখান। মার্ক যখন হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে নিজের যাত্রা শুরু করেন তার আগেই  প্রোগ্রামের হিসেবে খ্যাতি তিনি অর্জন করে ফেলেছিলেন। যখন তিনি ফেসবুক লঞ্চ করেন তখন হার্ভার্ডের তিনজন সিনিয়র   তার বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন এবং মার্ক হার্ভার্ড থেকে ড্রপ আউট হন।  হার্ভার্ডের মত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ঝরে পরা অনেক বড় ক্ষতি ছিল মার্কের জন্য। কিন্তু তিনি থেমে ছিলেন না। তিনি নিজের উপরে বিশ্বাস রেখে নিজের কাজে অগ্রসর হয়ে ছিলেন। মার্কের প্রতিটি কথা প্রতিটি উক্তিতে প্রকাশ পায় তার জীবনের সংঘর্ষ এবং সাফল্য। নিম্নে তার উক্তির ছোট একটি অংশ দেয়া হল।

  • জীবনের সবচেয়ে বড় ঝুঁকি, জীবনে কোন ঝুঁকি না নেয়া।এই পৃথিবী খুব দ্রুত পরিবর্তন হচ্ছে তাই ব্যর্থ না হওয়ার মুলকথা হল ঝুঁকি নেয়া।
  • যদি চিন্তা করি ফেসবুক কি করছে? তাহলে বলবো ফেসবুক মানুষের জন্য একটি পরিচয় তৈরি করছে, ব্র্যান্ড তৈরি করছে যা তাদের মানুষের সাথে পরিচয় করাতে সাহায্য করে। যদি আপনি এখনও ফেসবুক লগইন না করেন তাহলে বলবো আপনি সুযোগ হারাচ্ছেন।
  • মানুষকে যখন আপনি তথ্য শেয়ার করার সুযোগ দিচ্ছেন তখন একই সাথে আপনি সমগ্র বিশ্বকে স্বচ্ছ করছেন।
  • ফেসবুক কখনো একটি কোম্পানি হওয়ার জন্য তৈরি করা হয়নি। ফেসবুক তৈরির মুল উদ্দেশ্য হল সমগ্র বিশ্বকে সকলের কাছে উন্মুক্ত এবং যোগাযোগ সহজ করা।
  • আপনার বিখ্যাত হবেন আপনার স্থায়িত্বের জন্য। আপনার স্থায়িত্ব তখনই গ্রহণযোগ্য হবে যখন আপনি অনেক দীর্ঘসময় ধরে একই স্থানে স্থায়ী থাকবেন।
  • আমার মতে ব্যবসায়ের একটিই নিয়ম, যেটা আপনি সহজে করতে পারেন সেটাই ব্যবসা হিসেবে নিবেন। শুধু তখনি আপনি অনেক বেশী উন্নতি করতে পারেবেন।

Comments

comments

Related posts